সোনারগাঁয়ে বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক সিরাপ ও ভেজাল কয়েলসহ আটক-১২

বাংলাদেশ

সোনারগাঁয়ে বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক সিরাপ ও ভেজাল কয়েলসহ আটক-১২

সোনারগাঁও(নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ৭,৩০০ বোতল যৌন উত্তেজক সিরাপ ও বিপুল পরিমাণ ভেজাল কয়েলসহ ১২জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১।

সোমবার(১০ফেব্রুয়ারি)উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের কুতুবপুর এলাকার এম.কে ফুডস্ ও এম.এম কনজুমার নামে দুটি কারখানায় অভিযানে চালিয়ে র‌্যাব-১১ একটি টিম তাদের গ্রেফতার করে।

র‌্যাব-১১ এর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়,কারখানা ০২টি হতে আনুমানিক ৭,৩০০ বোতল অঅনুমোদিত যৌন উত্তেজক সিরাপ ও বিপুল পরিমাণ বিভিন্ন ব্রান্ডের কয়েল এবং পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ০১টি কাভার্ড ভ্যানও জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, উক্ত কারখানা ০২টি দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ গ্যাস সংযোগের মাধ্যমে অনুমোদিত বিহীন যৌন উত্তেজক সিরাপ এবং ভেজাল কয়েল উৎপাদন ও বাজারজাত করে আসছে। এম.এম কনজুমার দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে জাম্বু,গাংচিল ইগলু,ম্যাক্স,নাইট মাস্টার ইত্যাদি বিভিন্ন ব্রান্ডের নামে কয়েল তৈরী ও পাকেটজাত করে বাজারে বিক্রি করে আসছে।

এম.কে ফুডস্ এর উৎপাদনকৃত যৌন উত্তেজক লায়ন ফুডস শরবতগুলো প্যারাসিটামল পাউডার,টেস্টি সল্ট, স্যাগারিন,এমপিএস, ব্যাফেন,এসএস পাউডার, সোডিয়াম পাউডার,সাইট্রিক এসিড,ঘাম,ঘন চিনি, সাধারণ চিনি,ফ্লেভার ও রং সহ মোট ১৬টি ক্ষতিকারক রাসায়নিক উপাদান দিয়ে তৈরী করা হয়।যা জনস্বাস্থ্যের জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ।এই অননুমোদিত ভেজাল কয়েল ও যৌন উত্তেজক শরবত উৎপাদন করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করে আসছে বলে গ্রেফতারকৃতরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে।

এভাবে কারখানা ০২টি অবৈধ গ্যাস সংযোগের মাধ্যমে যৌন উত্তেজক শরবত এবং ভেজাল কয়েল উৎপাদন করে জনস্বাস্থ্যের ও রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সম্পত্তির ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে আসছে। তিতাস গ্যাস কোম্পানীর টেকনিশিয়ানের প্রাক্কলনে দেখা যায় কারখানা ০২টি দীর্ঘদিন ধরে প্রতি মাসে ৩০ লক্ষ ২৪ হাজার টাকার গ্যাস চুরি করে আসছে।পরবর্তীতে তিতাস গ্যাস কোম্পানী কর্তৃপক্ষ উক্ত কারখানাগুলোর অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো মোঃ সুমন মোল্লা(১৯), মোঃ রকিবুল ইসলাম(২২),মোঃ ফয়সাল আহম্মেদ(১৯), মোঃরাজু বেপারী(২৪),মোঃখায়রুল আলম(৪৭),মোঃ হাবু বেপারী(৫০),মোঃরাকিব হোসাইন(২৪),মোঃ আব্দুর রহমান(২৭),মোঃ আশরাফুল ইসলাম(২৫), মোঃতাহমীদ ইসলাম(২৩),মোঃআনোয়ার হোসেন(২২) ও মো রাশেদ গাজী(২৩)নামের ১২ জন।

গ্রেফতারকৃত বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *